নবীন বরণ

প্রায় প্রত্যক কলেজেই নবীন বরণ অনুষ্ঠান হয়। আমাদের ডি.এল.এড কলেজও তার ব্যতিক্রম রইল না। যদিও এখনো দেশ থেকে করোনা সম্পূর্ণ নিশ্চিহ্ন হয়ে যায়নি, ভ্যাকসিন বেরিয়েছে বলেই একটা অগ্রসরমান অতিমারিকে সম্পূর্ণ অবজ্ঞা করে, তড়িঘড়ির মধ্যে এত জনসমাবেশ করে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করার প্রয়োজনীয়তা আমার বোধগম্য হয়না। আরও কয়েকমাস পর, দেশের বেশিরভাগ মানুষ ভ্যাকসিন নিয়ে নেওয়ার পরেই অনুষ্ঠান করলে আমার মতে তা উপযুক্ত হত। থাক এই ব্যপারটিকে নাহয় কিছুক্ষণের জন্য বাদই দিলাম (!!)।

 


এটাই প্রথমবার শিক্ষার্থী হিসাবে কলেজ গেলাম। মনের ভেতর একটা চাপা উৎকণ্ঠা তো অবশ্যই ছিল। যাইহোক, কলেজে ঢুকেই একটা বিরাট অসুবিধার সম্মুখীন হলাম, কলেজটি বেশ বড় হওয়ার দরুন, ঠিক কোথায় অনুষ্ঠানটি হবে সেটা খুঁজতেই অনেক সময় লেগে গেল। যাইহোক, স্বাভাবিক নিয়মেই প্রদত্ত সময়ের অনেক পরেই অনুষ্ঠান শুরু হল। বেশ কিছুক্ষণ অনুষ্ঠান চলল। সেই সুযোগে অনেকের সাথে পরিচয়ও ঘটল। তবে কলেজে দেখলাম, ছেলের তুলনায় মেয়ের আধিক্য, সামাজিক উন্নতির দিক থেকে দেখলে যা একটি ভালো দিক। খাওয়া দাওয়ারও ব্যবস্থা ছিল - নিরামিষ ও আমিষ দুই ধরনেরই। 

অনুষ্ঠান বেশ ভালো হল। একটা ভালো জিনিস দেখলাম, কলেজ থেকে দুস্থ অথচ মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের কিছু সাহায্য প্রদান করাও হলো, সত্যিই এক ভালো উদ্যোগ!

আজকের অনুষ্ঠান ছিল নবীন বরণ বা ইংরেজিতে Freshers' Welcome কিন্তু একটা প্রশ্ন আমার মনে রয়েই গেলো, আমাদেরকে বরণ কই করা হলো? শুধু যখন খাবারের জন্য টোকেন নিতে গেছিলাম সেখানে শুধু কয়েকজন ছাত্রী চন্দনের টিকা দিল , একটা গোলাপ ফুল দিল আর একটা ফাইল দিল (আবার তার মধ্যে ছিল, একটি কাপড়ের মাস্ক, একটি কলম এবং দুটি নোট প্যাড - একটার বদলে ভুল করে মনে হয় দুটি দিয়ে ফেলেছে) । এটাই কি তাহলে বরণ ছিল? অনুধাবন করতে পারিনি! 

    ডি.এল.এড কলেজ অর্থাৎ যেখানে প্রাথমিক ও উচ্চ-প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক হওয়ার জন্য প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। কিন্তু আজকে কলেজে গিয়ে কিছু ছাত্রছাত্রীর এমন হাবভাব দেখলাম যা শিক্ষক হওয়ার জন্য সম্পূর্ণ অযোগ্য। মানছি কোনো মানুষই একেবারে নিখুঁত হয়না কিন্তু হবু-শিক্ষকের কিছু কিছু উন্মুক্ত গুন বা বৈশিষ্ট্য থাকে যা পরবর্তীকালে শিক্ষার্থীদের চরিত্র ঘটনে সাহায্য করে অতঃপর সেই গুন যদি বিকৃত হয় তাহলে সেই হবু-শিক্ষক কিভাবে ছাত্রদের সঠিক চরিত্র গঠনের শিক্ষা দিতে পারবে? 

যদিও কয়েকঘন্টার দেখাতেই কারো চরিত্র বিশ্লেষণ করা ঠিক নয়, তাই আশা করবো যাতে আমার অনুমান ভুল হয়। আগত দিনে পর্যবেক্ষণ করে জানা যাবে আমার অনুমান ঠিক ছিল কি ভুল!

শিক্ষকের আদর্শ আসলে / শিক্ষার্থীর চরিত্রের ছাঁচ / সেই ছাঁচ ছিদ্রযুক্ত হলে চলবে না।

~ পলাশ বাউরি

মন্তব্যসমূহ

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

এই ব্লগটি থেকে জনপ্রিয় পোস্টগুলি

আমি ডিপ্রেশনে আক্রান্ত!

সমাজ ও সিনওলি

ধর্ষণ ও আমরা